সারভারের অনন্য বৈশিষ্ট্য

সারভার নিজেও একটি কম্পিউটার। কিন্তু আপনার নিজের ডেস্কটপ কম্পিউটারের তুলনায় এটির বেশ কিছু অনন্য বৈশিষ্ট্য থাকে। সেই বৈশিষ্ট্যগুলো মূলতঃ নিরবিচ্ছিন্ন সার্ভিস প্রদানের জন্য প্রয়োজন হয়। তো নতুনদের জন্য আমি সারভারের কিছু অনন্য বৈশিষ্ট সহজ ভাষায় আলোচনা করবো।
আলোচনার আগে একটু বলে নেই- ধরুন কোন একটা ব্যাংকের সারভার যদি ব্যাংক চলাকালীন সময়ে বন্ধ হয়ে যায় তখন কি হবে? লেনদেনই বন্ধ হয়ে যাবে তাই না? সারভার প্রতিনিয়ত হাজার হাজার লাখ লাখ ব্যবহারকারী হিট করতেই থাকে করতেই থাকে। তো সারভারের কি কি বৈশিষ্ট্য আমাদের চাহিদাতে থাকতে হবে-তাও কিন্তু নিজের জানা উচিৎ।

আপনার নিজের কম্পিউটারকেও কিন্তু সারভার বানাতে পারবেন। সারভার কনফিগার করার পর এটা কিন্তু ডেস্কটপ থাকবে না। এটা সারভারই হয়ে যাবে। সার্ভিস নিরবিচ্ছিন্ন থাকার জন্য নিচের বৈশিষ্ট্যগুলো কি জানেন?

এক. RAID: Redundant Array of Inexpensive Disk

রেইডের কথা আপনি সুনে থাকবেন। রেইড হলো একাধিক হার্ডডিস্ক যা একই তথ্য ধারন করে। ধরি দুটি হার্ডডিস্ক রেইড করা। তো রাইট হলে দুটিতে একই ডাটা রাইট বা লেখা হবে। আবার যখন কোন তথ্য রিড করবেন তখন একই ডাটা প্রদান করবে। রেইড থাকলে বা না থাকলে রাইট করার সময় একই লাগবে। কিন্তু যখন আপনি তথ্য রিড করবেন। তখন কি হবে? তখন দুটি ডিস্ক থেকে ভিন্ন ভিন্ন অংশ থেকে ডাটা রিড করে জোড়া দিবে। আর তাই দ্বিগুন গতিতে ডাটা ফিরে পাবেন।

আসল কথাটা কিন্তু বলি-ই নি। যদি কখনো একটা ডিস্ক নষ্ট হয়ে যায়? তখন অন্যটা কিন্তু কাজ করে যাবে।

মজার বেপার হলো কোন হার্ডডিস্ক ফেইল মারলে কিন্তু কাজ থেকে থাকবে না। বেপারটা মজার না?

রেইড দুই রকমরে হয়।

সফটওয়্যার রেইডঃ

সফটওয়্যারের মাধ্যমে রেইড পরিচালিত হয়। এক্ষেত্রে সিপিউ এবং অপারেটিং সিস্টেম রেইড কার্যক্রম পরিচালনা করে।

হার্ডওয়্যার রেইডঃ

রেইড কার্ড মাদারবোর্ডে লাগানো থাকে বা কোন কোন মাদার বোর্ডে যুক্ত থাকে। কার্ড নিজে কাজগুলো করে। হার্ডডিস্কগুলো কার্ডের স্লটে লাগাতে হয়।

এবার হয়তো আপনার মনে হবে- আমার নিজের পিসিতে রেইড হলে কত না ভাল হতো! ও হা। আপনি চাইলে আপনার পিসিতেও রেইড কর্ড লাগিয়ে  একাধিক হার্ডডিস্ক লাগিয়ে রেইডের মজা নিতে পারেন।

দুই. হট প্লাগ হার্ডডিস্কঃ

কম্পিউটার চলা অবস্থায় কখনো হার্ডডিস্ক খুলে দেখেছেন? দেখুন একবার। কম্পিউটার রিস্টার্ট নিবে। কিন্তু উচ্চমানের সারভারের সাথে যে হার্ডডিস্ক থাকবে তা খুলতে এবং লাগাতে পারবেন। আর তখন রেইড ডিস্ক কাজ চালিয়ে যাবে। আবার যখন সেটা লাগিয়ে দিবেন তখন ডাটা সিনক্রোনাইজ হয়ে যাবে।

ডাটাসেন্টার পরিচালকদের কাথে অহরহ কোন ডিস্ক ফেইল হতে পারে। তখন তারা সহজে খুলে আরেকটা লাগিয়ে দেয়।

তিন. একাধিক ল্যান পোর্টঃ

সারভারের সাথে সারা দুনিয়ার যোগাযোগ এই ল্যান কার্ডের মাধ্যমেই। আর তাই একাধিক ল্যান কর্ডের প্রয়োজন অবশ্যম্ভাবী। তাছাড়া এমন কিছু সার্ভিস আছে যাতে একাধিক ল্যান কার্ড ছাড়া চলবেই না।

ধরুন আপনি একটা সারভারকে মাক্রোটিক রাউটার হিসেবে বা ন্যাট সারভার হিসেবে করফিগার করবেন। তখন অন্ততঃ একটি ল্যান ও একটি ওয়ান পোর্ট করার জন্য আপনার অবশ্যই দুইটি পোর্ট লাগবে।

iLO or iDRAC or KVP over IP

ধরুন আপনি আছেন বাংলাদেশে এবং আপনার সারভার রয়েছে আমেরিকাতে। এখন আপনার সারভারের হার্ডডিস্ক ফেল করেছে। এখন সারভার রিপেয়ার বা মনিটর করবেন কিভাবে? এজন্য সারভারে আরেকটি ল্যান পোর্ট থাকে যার মাধ্যমে আপনি আপনার সারভারের বায়োস পর্যন্ত পরিচালনা করতে পারবেন। কোন পোর্ট বন্ধ করতেও পারবেন। দেখতে পারবেন আপনার কোন হার্ডডিস্কটি নষ্ট হয়েছে তার অবস্থা।

iLO(Integrated Lights-Out)

iLO(Integrated Lights-Out) হলো HP সারভার পরিচালনার জন্য ইথারনেট মাধ্যম। Proliant সারভারগুলোতেএই টেকনোলজী দেখা যায়। সফটওয়্যারের মাধ্যমে সারভারের ডিসপ্লেকে নিজের পিসিতে দেখতেও পারবেন।

 iDRAC(Integrated Dell Remote Access Controller)

ডেলের ক্ষেত্রে iDRAC (Integrated Dell Remote Access Controller), এটির নিজস্ব প্রোসেসর, র‌্যাম সার্ভিস আছে যার ফলে মূল সারভারের যে কোন অংশ নষ্ট হলেও এটি সচল থাকে। এবং সারভারকেএকসেস করা যায়।

আপনি যদি বড় বড় সারভার নিয়ে কাজ করে থাকেন তাহলে এটার স্বাদ পাবেন।

আপনি যদি ডেডিকেটেড সারভার কিনেন তাহলে সেই সারভারের KVM over IP দিতে পারে। তার মানে হলো সারভারের এই মনিটরিং পোর্টগুলোতে পাবলিক আইপি বসানো থাকবে এবং ইউজারনেম ও পাওয়ার্ড আপনাকে দিবে যার মাধ্যমে আপনি আপনার সারভারে ওয়েব থেকে একসেস করতে পারবেন এবং মনিটরিং করতে পারবেন।

চার. কুলিং সিস্টেমঃ

সারভারগুলোতে তাপমাত্রার সেনসর থাকে এবং সেটার মাধ্যমে কুলিং সিস্টেম সয়ংক্রিয়ভাবে পরিচালিত হয়। তাপমাত্রা বেশি হলে দ্রুত ফ্যান চলে-এমন বেপার। ফ্যানের গতি আপনি বায়োস থেকে নিয়ন্ত্রণও করতে পারবেন। তাপমাত্রা মনিটরিং করতে পারবেন।

ডাটা সেন্টার এমনিতেই তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রিত থাকে। সারভার রুমের পরিবেশের বেপারে পরে বলা হবে।

পাঁচ. একাধিক পাওয়ার সাপ্লাইঃ

কিছু কিছু উন্নত সিস্টেমে রিডানডেন্ট পাওয়ার সাপ্লাই থাকে।  একটি বা দুটি সচল থাকলেও সারভার সচল থাকবে।এমনকি সারভার চলাকালীন একটি পাওয়ার সাপ্লাই নষ্ট হয়ে গেলেও এটি চলতে থাকবে। আপনি সারভার বন্ধ না করে পাওয়ার সাপ্লাই পরিবর্তনও করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*