ক্রেতা সেজেই দোকানে ঢুকেই কি খুন সেলিমকে?


স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ক্রেতা সেজে মোটা অঙ্কের রত্ন কেনার ‘টোপ’ দিয়েই কি জাকারিয়া স্ট্রিটে মহম্মদ সেলিমের দোকানে ঢোকে আততায়ীরা? তারপর দামি রত্ন লুঠ করতে গিয়ে বাধা পাওয়ার জন্যই কি তাঁকে খুন করে আততায়ীরা? প্রাথমিক তদন্তে এমন সূত্রই পেয়েছেন গোয়েন্দারা৷

রত্ন ব্যবসায়ী সেলিমের পরিবার সূত্রে খবর, সোমবার রাতে আসানসোল থেকে এক ক্রেতা দোকানে আসবে বলে জানিয়েছিলেন সেলিম৷ ওই ক্রেতা চলে যাওয়ার পরে বাড়ি ফিরবেন বলেও জানিয়েছিলেন সেলিম৷ কিন্তু দীর্ঘক্ষণ কেটে যাওয়ার পরেও বাড়ি না ফেরায় তাঁকে ফোন করে পরিবারের লোকেরা৷ কিন্তু বাড়ির লোকেদের একটি ফোনও ধরেননি সেলিম৷ তখন জাকারিয়া স্ট্রিটে তাঁর দোকানে গিয়ে দেখা যায় মেঝেতে পড়ে রয়েছেন সেলিম৷ গলায় কালসিটে দাগ৷ খবর পেয়ে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে৷ ঘটনার পর থেকে সেলিমের দোকান থেকে কয়েকটি হীরে নিখোঁজ৷

পুলিশের সন্দেহ, মোটা অঙ্কের ওই রত্ন কেনার টোপ দিয়ে রাতের দিকে এসেছিল আততায়ী৷ মোটা অঙ্কের লেনদেন হবে বলে দোকানের সাটারও নামিয়ে দিতে বলেছিল তারা৷ তারপরেই চলে অপারেশন৷ দুষ্কৃতীদের মূল উদ্দেশ্য ছিল হীরে লুঠ করে পালিয়ে যাওয়া৷ সেজন্য আততায়ী যে একা আসেনি সে ব্যাপারেও পুলিশ নিশ্চিত৷ কারণ তাঁরা একাধিক ব্যক্তির পায়ের ছাপ পেয়েছেন ঘটনাস্থল থেকে৷ এক গোয়েন্দা অফিসার বলেন, ‘‘সম্ভবত আততায়ীরা ক্রেতা সেজে দোকানে ঢুকে হীরের রত্ন দেখতে চায়৷ হীরে বের করার পরেই সেটি লুঠ করার চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা৷ তাতে বাধা দেওয়াতেই গলা টিপে খুন করা হয় সেলিমকে৷’’

দুষ্কৃতীরা সেলিমের মোবাইলটি লুঠ করে নিয়ে গিয়েছে৷ সেই মোবাইলের সূত্রে আপাতত শুরু হয়েছে তদন্ত৷ কোনও পেশাদার দুষ্কৃতীরা এই ঘটনায় জড়িত নয় বলেই মনে করছে পুলিশ৷ তবে ব্যবসায়ীক শত্রুতার জেরে এই খুন করা হয়েছে তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*