কিভাবে সুন্দর ছবি আঁকা শেখাবেন?


সুন্দর ছবি আঁকা অনেক বেশি ক্রিয়েটিভ দক্ষতার পরিচয় দেয়। শিশুদের জন্য সুন্দর ছবি আঁকা শেখার সময় খুব বেশি নির্দিষ্ট না হলেও নির্ধারন করা যায়। কথা বলতে কিংবা কলম ধরতে জানলেই ধরিয়ে দিতে পারেন পেন্সিল ক্যানভাস। অনেক শিশুকে এসব ধরিয়ে দিতে হয় না, নিজে নিজেই এঁকে ফেলে যা ইচ্ছা তা ই। কখনো গ্রামের দৃশ্য কখনো আবার আঁকা ছবি টানিয়ে দিবে দেয়ালে দেয়ালে। কিভাবে শিশুকে সুন্দর ছবি আঁকা শেখাবেন? আসুন জেনে নেই।

শিশুদের সুন্দর ছবি আঁকা শেখাবেন কিভাবে?

শিশুর জন্য নানা আয়োজন করা যেতে পারে। সুন্দর সুন্দর ছবির ক্যানভাস তাকে দেখানো যেতে পারে। ছবি কিভাবে আঁকা যায় তার একটা সাধারন ধারনা দিতে পারলেই শিশু বুঝতে পারে। কোন দিক দিয়ে তাকে শুরু করা লাগতে পারে। তাই সাধারন কিছু দিক দেখানো দরকার। বেসিক আইডিয়া দিতে গিয়ে তাকে অবশ্যই দেখানো যেতে পারে কিভাবে লাইন, আকার, দীর্ঘ আকৃতির কোন অবয়ব অথবা চারপাশের যে কোন কিছুর আঁকার ধারনা দিতে হবে। তবেই সে আগ্রহী হয়ে উঠবে।

ছবি আঁকা শিশুরা অনেক বেশি উপভোগ করে। যদি সে উপভোগ না করে তবে তাকে জোর করা উচিৎ হবে না। তার কাছে সহজ থেকে সহজতর পদ্ধতিগুলো এনে দেয়া যেতে পারে। কিন্তু কখনো বিরক্ত করা ঠিক হবে না।

শিশুদের সুন্দর ছবি আঁকা শেখানোর জন্য কিছু পদক্ষেপ

কাগজ কলম আর পেন্সিল, সাথে কিছু উদাহরন। দিয়ে ধরিয়ে দিলেন আর হয়ে গেল তা কিন্তু নয়। শিশুকে কাছে নিয়ে হাতে হাত ধরিয়ে দেখানো দরকার কিভাবে বৃত্ত আঁকতে হয়, কিভাবে বর্গক্ষেত্র। চতুর্ভূজ। এই বৃত্ত আর চতুর্ভূজ থেকে কিভাবে একটি ক্যারেক্টার বা চরিত্র করে তোলা যায়? সুন্দর ছবি আঁকা

রঙ পেন্সিলের ব্যাবহার শিশুদের আরো বেশি সুন্দর ছবি আঁকা শেখায়

ছবি আঁকার ক্ষেত্রে রঙের ব্যাবহার অনেক বেশি কার্যকরী। শিশুদের মধ্যে রঙের বিষয়ে আগ্রহ থাকে অনেক বেশি। রঙ সিলেক্ট করা শিখিয়ে দিলে ওরা করে ফেলতে পারে অনেক বেশি সুন্দর সুন্দর কম্বিনেশন। কোন জায়গায় কেমন লাইটিং আর কেমন শেড হবে তার সম্পর্কে আইডিয়া আর বর্ননা দিলেই ওরা শিখে যেতে পারে।

সাইফান একটা ছবি এঁকেছে নিচের মত করে দেখুন। এই ছবি আঁকার পেছনে তার অনেক দিনের অভিজ্ঞতা কাজে দিয়েছে। প্রথম দিকের অনেক ছবির চেয়ে এখনকার দিনের ছবিগুলো অনেকটাই কাজের হয়।

সাইফান এর চিত্রশিল্প

সাইফান এর চিত্রশিল্প

সাইফান এর চিত্রশিল্প, গলদেশ

সাইফান এর চিত্রশিল্প, মানুষের গলদেশ

শিশুকে সুন্দর ছবি আঁকতে শেখানোর জন্য আর্ট স্কুলে ভর্তি করিয়ে দেয়া যায়-

বাসায় যদি পর্যাপ্ত শেখা না হয়, কোন বিরক্ত করা হয়ে থাকলে তাকে একটু বেশি দক্ষতা অর্জনের জন্য আর্ট স্কুলে বা একাডেমীতে পাঠানো যেতে পারে। আর্ট একাডেমীতে গেলে শিশুরা অনেক বেশি বুঝতে পারে। কারন সেখানে সাধারন নিয়মের বাইরেও একটা কারিকুলাম মেইনটেইন করানো হয়।

আর্ট শেখানোর জন্য কিছু টূলস থাকে। পেন্সিলের কিন্তা তুলির নির্বাচন একেক সময়ে একেক রকমের হয়। ব্রাশ আর শেড ভিত্তিক কালার নির্বাচনের জন্য গাইড এর সহায়তা নিতে হয়।

শিশুকে প্রচুর চিত্র শিল্প দেখানো আর সেদিকে আগ্রহী করে তোলা

বাইরের কিংবা ভেতরের জনপ্রিয় শিল্পগুলো যদি শিশুকে দেখানো হয় তবে তা শিশুর মনে অনেক বেশি আগ্রহের উদ্রেক করে। এজন্য বেশি বেশি আর্ট গ্যালারি তে ভ্রমন করানো যেতে পারে। প্রকৃতির কাছাকাছি যত কিছু আছে তার সব কিছুই শিশুকে দেখানো যেতে পারে।

 

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*