‘কাজের মাসিকে দেখলেই কামার্ত হয়ে পড়ি’

বহুগামিতা নতুন নয়। কিন্তু স্থান-কাল-পাত্র বিচার না করে তাতে সাড়া দিলে বিপদ ঘটতে পারে। সম্প্রতি এমনই পরিস্থিতির সম্মুখীন হলেন এক যুবক।

প্রশ্ন: বয়স ৩৪ বছর। সুখী বিবাহিত জীবনে অভ্যস্ত এবং এক পুত্র সন্তানের বাবা। স্ত্রীকে খুবই ভালোবাসি। গত ৪ বছর যাবত বাড়ির পরিচারিকার প্রতি তীব্র যৌন আকর্ষণ বোধ করছি। মহিলা আমার চেয়ে বছর চারেকের বড়ই হবেন। তিনি আমাদের সঙ্গে একই বাড়িতে বসবাস করেন। বেশ কয়েক বার তাঁর প্রতি আমার আবেগ জানানোর চেষ্টা করেও বিফল হয়েছি। মনে হয় তাঁর এসব বিষয়ে কোনও আগ্রহ নেই। তবে গোপনে তাঁর বেশ কিছু অসতর্ক মুহূর্তের ছবি তুলেছি। মাঝেমধ্যেই সে সব ফোটোগ্রাফ দেখে হস্তমৈথুন করে তৃপ্তি পাই। ব্যাপারটা কি স্বাভাবিক? যদি না হয় তবে কী করণীয়?

– নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক, খড়দহ

উত্তর: পরিচারিকার প্রতি যৌন আকর্ষণ বোধ করছেন এবং মানসিক টানাপোড়েনের মধ্যে রয়েছেন, বুঝতে পারছি। প্রথমত, কেউ যত্ন নিলে এবং সুন্দর ব্যবহার করলে তাঁর প্রতি আকৃষ্ট হওয়া অস্বাভাবিক নয়। আপনার কথা থেকে জানতে পেরেছি যে, ওই পরিচারিকা আপনার পরিবারের সঙ্গে বেশ কয়েক বছর যাবত বসবাস করছেন। ফলে তাঁর প্রতি আপনার এমন মনোভাব তৈরি হতেই পারে।

এবার আপনারই কথা থেকে জানতে পারছি যে, স্ত্রীর সঙ্গে সুখী দাম্পত্য ভোগ করছেন এবং একটি পুত্রসন্তানের জন্মও দিয়েছেন। যদিও পরিচারিকাকে দেখে তীব্র যৌন উত্তেজনা বোধ করছেন, তবু বলি, স্ত্রীকে ভালোবাসলে তাঁর প্রতি আপনার দায়বদ্ধতা অস্বীকার করতে পারেন না। তা ছাড়া ওই পরিচারিকার সঙ্গে আপনার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি হলে, তার ফলাফল সম্পর্কেও ভেবে দেখুন। তার চেয়ে বরং স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্কে বৈচিত্র আনার চেষ্টা করুন। যৌন মিলনের ভঙ্গি বা তার আবহ পাল্টে দাম্পত্য আরও স্বাদু করে তুলুন। মনে রাখবেন পরিচারিকা নন, আইনত তিনিই আপনার স্বাভাবিক যৌনসঙ্গী। ভালো থাকুন।

– মনোবিদ রচনা আওয়াত্রামণি, মুম্বই

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*