‘অপু যে সমঝোতার চেষ্টা করে নাই তার বাস্তব প্রমাণ আমি’


নয় বছরের সংসার ভাঙনের পেছনে অপু বিশ্বাসের অবহেলাকে দুষলেন শাকিব খানের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ইকবাল খান জয়। তার মতে, অপু চাইলে সমাঝোতা হতে পারতো। ইকবাল খান জয় শুধু শাকিবের ঘনিষ্ঠ বন্ধুই নন, ঢাকাই ছবির এই তারকাকে নিয়ে ‘শুটার’ ছবিটি প্রযোজনাও করেছেন তিনি।

বুধবার ‘অপুর সংসার’ ও ঘর ভাঙ্গা নিয়ে কথা বলেছেন এই প্রযোজক। ২২ নভেম্বর ডিভোর্স পেপার ইস্যু হলেও দেরিতে জানাজানির ব্যাপারে তিনি বলেন, সম্ভবত কোনো আইনি কারণে দেরিটা হয়েছে। ‘কী কারণে তালাক হয়েছে’ এমন প্রশ্নের জবাবে জয় বলেন, ‘আসলে এটা তো শাকিবের ব্যক্তিগত ব্যাপার। খবরটা জানার পর শাকিবকে ফোন দিয়েছিলাম। তখন অনেকক্ষণ কথা হলো।’

‘প্রথমত, শাকিব ভারতের ব্যাপারটা কোনভাবেই মানতে পারছে না। দ্বিতীয়ত, অপু শাকিবের সাথে কখনোই সমাঝোতার চেষ্টা করেনি। অপু যদি আমাকেও ফোন দিতো তাহলেও হতো। ফিল্মে শাকিবের যারা বিপক্ষে তাদের সাথে অপুকে সবসময় দেখা যায়। এটা অবশ্যই স্বামীর ইগোতে লাগবে। তারপরও সে (শাকিব খান) ৮-৯ মাস সহ্য করেছে। সম্ভত এ কারণে ডিভোর্স দিয়েছে।’

‘যেমন শাকিব গিয়ে দেখেছে তার ছেলে তালা মারা। পৃথিবীর কোনো বাবাই মানতে পারবে না তার ছেলে তালা মারা, স্ত্রী বাইরে। এটাতে শাকিবের খুব কষ্ট পেয়েছে। এ কারণে এ সিদ্ধান্ত,’ বলেন জয়।

ইকবাল খান জয় বলেন, ‘অপু যে সমঝোতার চেষ্টা করে নাই তার বাস্তব প্রমাণ আমি। কারণ তাহলে প্রথম ফোনটা আমাকেই দিতো। ইকবাল ভাই যা হবার হয়েছে, আপনি শাকিবের খুব ঘনিষ্ঠ। শাকিব আপনার কথা শোনে। আমাদের দুজনের মধ্যে যে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে তা ঠিক করে দেন। অপু কখনই আমাকে ফোন দেয়নি।’

শাকিবের এই ঘনিষ্ঠ বন্ধু আরো বলেন, ‘আজ থেকে এক দেড় মাস আগে শাকিব বলেছিলো, ইকবাল ভাই বউটা কিন্তু অন্যদিকে ঘুরে যাচ্ছে। আপনাকে পরে সবকিছু বলবো, এইটুকুই।’ তবে অপুর কথিত প্রেমিক সম্পকের কিছুই জানেন না বলে জয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*